1. asmaakter99987@gmail.com : Asma Akter : Asma Akter
  2. jannatulsifa9486@gmail.com : BD NEWS 99 :
  3. ohanafariah8@gmail.com : Fariah Jalal Ohana : Fariah Jalal Ohana
  4. help.geniusplug@gmail.com : Geniusplug Technology : Geniusplug Technology
  5. jannatulparash123@yahoo.com : Jannat Parash : Jannat Parash
  6. jannatulsifa236@gmail.com : jannatul sifa : jannatul sifa
  7. kabirtanzim2@gmail.com : Kabir Mahmud : Kabir Mahmud
  8. jakia0702@gmail.com : Kuashabrita Usha :
  9. nilmubdiol@gmail.com : Md Mubdiul Islam : Md Mubdiul Islam
  10. mituakter54402@gmail.com : Mehreen Mitu :
  11. engr.romansarkar@gmail.com : romanbd :
  12. afrinsabrin2019@gmail.com : SABRIN AFRIN :
  13. jannatul.sifa@yahoo.com : Shahjadi Mukti :
  14. soyboliny@gmail.com : Shifat Afrin Semu : Shifat Afrin Semu
  15. suchonaislam23@gmail.com : Shuchona Islam :
  16. ummayjahan3@gmail.com : Tanzina Mim : Tazina MIm
বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০৭:৩৯ অপরাহ্ন

বর্তমান প্রেক্ষাপটে রাজনীতির প্রয়োজনীয়তা ও অপ্রয়োজনীয়তা

  • প্রকাশিতঃ বুধবার, ১৭ জুন, ২০২০
  • ১৩ বার দেখা হয়েছে

বর্তমান প্রেক্ষাপটে রাজনীতির প্রয়োজনীয়তা ও অপ্রয়োজনীয়তা যা জানাটা বা উপলব্ধি করাটা প্রয়োজনীয়তা এসে গেছে । বাংলাদেশসহ দক্ষিণ এশিয়ার প্রায় সবগুলো দেশের রাজনৈতিক দিক থেকে সক্রিয় । বাংলাদেশের রাজনীতির সূচনা লগ্ন ধরা হয় ভারত বিভাগের পর থেকেই । তার আগেও বাংলায় বিভিন্ন ধরনের আন্দোলনের মধ্যে যেমন তিতুমীরের বৃটিশ বিরোধী আন্দোলন , নীলকরদের প্রতিবাদে আন্দোলনসহ  বাংলায় অনেকবার রাজনীতিক সচেতনতাবোধ থেকে অনেক কিছুই পরিবর্তন আমরা লক্ষ্য করেছি।

আমাদের দেশের প্রায় ৯৫ ভাগ মানুষ প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে রাজনিতির সাথে জড়িত । এমন কি যেই বয়স টা পৃথিবীকে চেনার বয়স এখন আসে নি তখন ও আমাদের রাজনীতি বিষয় টা আমাদের মধ্যে প্রবেশ করছে । ভিন্ন ভিন্ন সময়ে রাজনীতি আমাদের কাছে ভিন্ন ভাবে এসেছে । মুক্তিযুদ্ধের সময় যে রাজনীতি আমাদের জন্য খুব প্রয়োজনীয় ছিল এখন তার বাইরে বের হয়ে দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রয়োজন বেশি বেড়ে গেছে ।

তবে সবচাইতে বেশি রাজনীতির যে প্রভাব লক্ষ করা গেলে দেখা যাবে যে , ভারত বিভাগের পর থেকেই বাংলাদেশের ভূখণ্ডটি তার নিজের রাজনৈতিক অধিকার বোধ সম্পর্কে আরো বেশি সচেষ্ট হয় । ভারত বিভাগের পর বাংলাদেশ পশ্চিম পাকিস্তানের অন্তর্ভুক্ত হওয়ার পর থেকে দিনে দিনে রাজনৈতিক অবস্থান আরও পাল্টে যেতে থাকে ।

একসময় যা ছিল আলোচনার বিষয়বস্তু তার রূপ নেয় আন্দোলন ও গণআন্দোলনের । 1971 সালের মুক্তিযুদ্ধসহ এর আগে পূর্ববর্তী যে আন্দোলন হলো তার সবগুলোই সফল হয় সুষ্ঠু রাজনৈতিক ব্যবস্থাপনার কারণে এতে বলতে বাধা নেই । তবে বর্তমান প্রেক্ষাপটে রাজনীতির ব্যাপারটি প্রশ্নবিদ্ধ এখানে।প্রশ্নবিদ্ধ কারণ ১৯৭১ সহ মুক্তিযুদ্ধ পূর্ববর্তী ও পরবর্তী সময়ে রাজনৈতিক যে প্রয়োজনীয়তা আমাদের দেখা যায় নিজেদের অস্তিত্ব রক্ষার্থে বর্তমান সময়ে রাজনীতির যে প্রসারতা এবং অপপ্রচার তা কিন্তু রাজনীতি আদর্শকে সমর্থন করেনা ।

বর্তমান প্রেক্ষাপটের আলোকে যদি দেখি তবে দেখতে পাব যে ,  বাংলাদেশে 90% মানুষ প্রত্যক্ষ এবং পরোক্ষভাবে রাজনীতির সাথে যুক্ত । এই ক্ষেত্রে শ্রেণি-পেশা ভেদে প্রায় সকলেই এবং দুঃখের ব্যাপার হচ্ছে যে শিক্ষাজীবনের যে অংশ শিক্ষার্থীদের রাজনীতি থেকে পড়ালেখা বেশি মনোযোগ দেয়ার কথা সেই জায়গাটিতে ও রাজনীতির প্রবেশে কোমলমতি শিক্ষার্থীদের চিন্তাভাবনায় যে সরলতা থাকা প্রয়োজন ছিল তা ঘটছে না ।

অবশ্যই রাজনৈতিক জ্ঞান একটি বিশেষ জ্ঞান  যা সবার থাকা উচিত এবং ভালো কিন্তু প্রত্যেকটা জিনিষেরই একটি মাপকাঠি আছে।  সেই মাপকাঠি অনুসারে মানুষের বেছে নিতে হয় কখন কোথায় কতটুকু আমরা গ্রহণ করব এবং কখন কোথায় কতটুকু আমরা বর্জন করব । এবং পরিস্থিতি বিবেচনায় মানুষকে বদলে যেতে হয় , এখন যখন আমরা একটি স্বাধীন দেশে বাস করি আমাদের এখন রাজনীতির জায়গা থেকে সবাই না হয় কিছু মানুষ যারা রাজনীতির সাথে জড়িত যারা আমাদের পলিসি মেকাররা , আমাদের মন্ত্রী,  সরকার তাদের কাজ তারা করার পর অন্যদের সেক্টরগুলো আছে সেখানে সবার উচিত যার যার সেক্টরে মনোযোগ দেয়া ।

আমাদের দেশে এখনো তথ্যপ্রযুক্তিতে অনেক পিছিয়ে আছে  । আমাদের উচিত তথ্যপ্রযুক্তি ,স্বাস্থ্য, শিক্ষা  ও অন্যান্য খাত গুলোতে অন্যান্য উন্নত দেশের সাথে সাথে এগিয়ে যাওয়া । আমরা যদি লক্ষ করি তবে দেখব যে , পার্শ্ববর্তী দেশ ভারত,  অনেক গরীব এবং পিছিয়ে পড়া গ্রাম  ,মানুষ জনসংখ্যায় অনেক বেশি থাকার পরেও, ধর্মান্ধতা সহ সামাজিক আরো অনেক সমস্যা থাকা সত্ত্বেও তারা বিজ্ঞান এবং উদ্ভাবনের যতটা এগিয়ে গেছে আমাদের দেশ ঠিক ততটা এগোতে পারেনি ।

অবশ্য এটাও সত্যি যে দুর্যোগপ্রবণ দেশ হওয়ার কারণে আমাদের বাজেট সবসময় আমাদের পক্ষে সমর্থন করেনা কারণ আমরা  অনেক অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনার সম্মুখীন হই যার জন্য আমাদের পূর্বপ্রস্তুতি সবসময় নেয়া হয় না এবং নেয়া হলেও পরবর্তীতে যেসব জিনিস আমরা যেসব খাতে আমরা ব্যয় করার কথা,  যেগুলো প্রকল্প পরিকল্পনা করা থাকে সেই কাজগুলো পরিপূর্ণ করার আগেই আমরা অনেক বিপদের মধ্যে পড়ে যাই ।

ভৌগোলিক ভাবে নিম্নভূমি হওয়ার কারণে আমরা এমনিতেই  সব সময় একটি দুশ্চিন্তার মধ্যে থাকি । এক্ষেত্রে আমাদের বর্তমানের রাজনৈতিক প্রেক্ষাপটের দিকে যদি চিন্তা করি তবে দেশের রাজনীতি যদি একদল সামলায় তারপর  বাকি সব সেক্টরগুলোর মানুষ রাজনীতি মুখি না হয়ে তাঁদের নিজস্ব কাজগুলো পরিপূর্ণভাবে করলে সে ক্ষেত্রে দেশের রাজনৈতিক অস্থিরতা কমে ও এর  সাথে সাথে মানুষের নিজস্ব আত্মউন্নয়ন ছাড়াও বেকার সমস্যার সমাধান সম্ভব বলে হতে পারে ।

তাই এই সময় আসলে আমাদের চিন্তা করতে হবে যে এখন কি আসলেই আমরা রাজনৈতিক প্রবেশ সব জায়গায় প্রয়োজনীয়  । প্রয়োজন হবে যদি প্রয়োজনীয় জিনিস থাকে তবে কেন আমরা রাজনীতির দিকে একমুখী থাকব। তবে কেন আমরা রাজনীতির অপ্রয়োজনীয় অংশ বাদ দেবো না , যা কিনা নিজের ,পরিবারের্‌ সমাজের  , সর্বোপরি দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে প্রভাব ফেলছে।

আবার একথা বলা যাবে না যে , রাজনীতি আমাদের জীবনে দরকার নেই । অবশ্য একটি স্বাধীন-সার্বভৌম দেশের জন্য রাজনীতি আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে আছে এবং এটা থাকবে এবং আমরা পুরো পৃথিবী থেকে বাংলাদেশ নামক মানচিত্র অর্জন করেছি দেশের সফল নেতৃত্ববিদ দের মাধ্যমে যাদের মধ্যে অন্যতম আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান ।  

কিন্তু একটি রাজনৈতিক অবস্থানের কারণে এবং রাজনীতিতে সক্রিয় থাকার কারণে  যদি অন্যন্য উন্নয়ন থেকে আমরা পিছিয়ে পড়ি তবে বলা যায় সময় এসেছে , যেই  দেশকে আমরা এত কষ্ট করে পেয়েছি সেই দেশকে  সফল দেশ করা ,উন্নত দেশ করা আমাদের দায়িত্ব ।স্বাধীনতার 40 বছর আরো বেশি সময় পার হয়ে গেলেও  এখন আমাদের উচিত জাপান,  চীন কে দেখে শেখার এত প্রতিকূল পরিবেশেও তারা কিন্তু খুব অল্প সময়ে বিশ্বে তাদের অবস্থান কে ধরে রেখেছে  । প্রথম সারির দিকে এশিয়ার দেশ হিসেবে বাংলাদেশকে চেনার গেলেও ভারত ,চীন্‌জাপান কে বেশি চেনে ।

 আমরা দেখব  উন্নত দেশগুলোর মধ্যে এই পলিসি গুলো মেইন্টেইন করা হয় যে, যে  কাজটি করবেন সেখানে আপনি সেই জায়গায় মনোযোগ দিবেন ।  সবাই এখানে একটি নির্দিষ্ট জায়গায় অন্তর্ভুক্ত হলে  সেটা সব ক্ষেত্রে খারাপ  ।অন্যান্য আরও উদাহরণ দেয়া যাবে ,তবে একটি উদাহরণ আমরা দিতে পারি যদিও এটি সামঞ্জস্যপূর্ণ কিনা সেটাও একটা প্রশ্নের বিষয় তবে এই উদাহরণটি আনছি উদাহরণ হিসেবে  ।

যেমন সরকারি চাকরি কিংবা বিসিএস ক্যাডার এর ক্ষেত্রে  আপনি দেখবেন যে বর্তমানে বিসিএস ক্যাডার , সরকারি চাকরিতে ব্যাপারটি কারণে আমাদের বেকারত্ব বাড়ছে । আমরা যদি সবাই যে কোন একদিকেই শুধু যাই এবং আমাদের বন্টন ব্যবস্থা যদি ভালো না থাকে তবে কখনোই, কোনো জায়গাতে্‌ কোনোভাবেই কোনো ভালো কিছু পাওয়া সম্ভব না ।এই বেকার ব্যবস্থা বৃদ্ধির কারণ হিসেবে কি মনে হয় না যে ,  সরকারি চাকরির প্রতি মানুষের এক দিকে মুখ করার  চিন্তা করার কারণে এই অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে  । তবে উদাহরণটি আপনারা বুঝতে পারবেন যে , শুধু একদিকে যাওয়ার কারণে কিভাবে পুরো ব্যবস্থা উপর প্রভাব ফেলে ।

 তেমনি রাজনৈতিক প্রেক্ষাপট হিসেবে বাংলাদেশকে বর্তমানে চিন্তা করলে একটি নির্দিষ্ট জায়গার পর অন্যান্য সবাইকেই রাজনৈতিক চেতনা নিয়ে অবশ্যই বাঁচতে হবে । ভালো-মন্দের হিসেব  ও বিবেকবোধ  একটি সুনাগরিকের বৈশিষ্ট্য  ।আমাদের রাজনৈতিক জ্ঞান কে আমাদের মধ্যে রাখতে হবে আদর্শ হিসেবে । মনে রাখতে হবে রাজনীতি কোন পেশা না যে আমরা একে নিয়ে আমাদের কর্ম তৈরি করবো ।অবশ্যই এ ব্যাপার গুলো প্রতিটি নাগরিকের মধ্যে থাকতে হবে কিন্তু পেশা হিসেবে অবশ্যই সবাইকে রাজনীতির দিকে যাওয়াটা এবং ওই জায়গাটা জুড়ে থেকে অন্য সেক্টরগুলো কে খারাপ করার অধিকার নিশ্চয়ই বাংলাদেশ নামক দেশ থেকে একজন সুনাগরিক হিসেবে আমরা পাওয়ার কোনো অধিকার রাখি না ।

সোশ্যাল মিডিয়া পোষ্টটি শেয়ার করুন।

এই ক্যাটাগরির আরও পোষ্ট
© All rights reserved © 2020 bdnews99.com