1. asmaakter99987@gmail.com : Asma Akter : Asma Akter
  2. jannatulsifa9486@gmail.com : BD NEWS 99 :
  3. ohanafariah8@gmail.com : Fariah Jalal Ohana : Fariah Jalal Ohana
  4. help.geniusplug@gmail.com : Geniusplug Technology : Geniusplug Technology
  5. jannatulparash123@yahoo.com : Jannat Parash : Jannat Parash
  6. jannatulsifa236@gmail.com : jannatul sifa : jannatul sifa
  7. kabirtanzim2@gmail.com : Kabir Mahmud : Kabir Mahmud
  8. jakia0702@gmail.com : Kuashabrita Usha :
  9. nilmubdiol@gmail.com : Md Mubdiul Islam : Md Mubdiul Islam
  10. mituakter54402@gmail.com : Mehreen Mitu :
  11. engr.romansarkar@gmail.com : romanbd :
  12. afrinsabrin2019@gmail.com : SABRIN AFRIN :
  13. jannatul.sifa@yahoo.com : Shahjadi Mukti :
  14. soyboliny@gmail.com : Shifat Afrin Semu : Shifat Afrin Semu
  15. suchonaislam23@gmail.com : Shuchona Islam :
  16. ummayjahan3@gmail.com : Tanzina Mim : Tazina MIm
বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০৭:৪৩ অপরাহ্ন

মহা”মারিতে ধৈর্যধারণ করা বীরত্বপূর্ন কাজ যেভাবে এর ফল পাবেন আপনি

  • প্রকাশিতঃ বুধবার, ৩ জুন, ২০২০
  • ২৪ বার দেখা হয়েছে

মহা”মারিতে ধৈর্যধারণ করা বীরত্বপূর্ন কাজ, যা জানা দরকার। বৈশ্বিক প্রানঘাতী মহা’মারি করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) আক্রান্ত গোটা বিশ্ব।বিশ্বের সকল মানুষ চরম বিপদ’সঙ্কুল অবস্থায় অতিবাহিত করছে।এই মহা’মারিতে ধৈর্য ধারণ করা একজন মানুষের  বীরত্বপূর্ন কাজ। বিপদে ধৈর্যধারণে রয়েছে অনেক উপকারিতা ও ফজিলত।বিপদে ধৈর্য ধারণকারীদের আল্লাহ পছন্দ করেন।হযরত আবু হুরাইরা(রাঃ)বর্ননা করেন,মহানবী (সাঃ)বলেন, মুমিন নারী-পুরুষের উপর মাঝে মাঝেই বিপদ ও পরিক্ষা আসে।কখনও সরাসরি বিপদ তার উপর আসে।আবার কখনো তার সন্তানের মৃ’ত্যু বরণ করে।আবার কখনও তার সম্পত্তি নষ্ট হয়ে যায়।সে বিপদে ধৈর্য ধারণ করার ফলে তার অন্তর পরিষ্কার হতে থাকে ও পাপ পঙ্কিলতা থেকে মুক্তি পেতে থাকে।অবশেষে তিনি নিষ্পাপ আমলনামা নিয়ে আল্লাহ তায়া’লার সাথে মিলিত হয়।

বিপদে ধৈর্য ধারণ করলে তাই বীরত্বপূর্ন কাজ, যারা এই গুনের অধিকারী হয় তাদের জীবনে অনেক কঠিন সম্মুখীন হতে হয়। যারা এর বাইরে গিয়ে কাজ করে তারা হয় বদমেজাজি ও রুক্ষ,তাদের ভাষা হয় কর্কশ, তারা জীবনে সফলতা অর্জন করতে পারে না।ধৈর্য একটি মহৎ গুন।আত্মসংযম করা,বিপদে ভেঙ্গে না পরে অবিচল ও অটল থাকা, মানুষের মেজাজের ভারসাম্যতা রক্ষা করা,দ্রুত গতিতে সফলতা অর্জন না করার মানেই হচ্ছে ধৈর্য।যেকোনো বিপদে নিজের মনকে স্থির রাখা।সব সময় সুস্থ ও যুক্তিসঙ্গত আচরণ রক্ষা করে চলা।ধৈর্য-সহ্য না থাকলে সফলতা অর্জন করা সম্ভব নয়।।সফলতার জন্য দরকার তীক্ষ্ণ ও কোমল মেজাজ।যে ব্যক্তি ধৈর্য হারা হয়ে যায়, সে সফলতা অর্জন করতে পারে না। তাই সুখে- দুঃখে,আপদে-বিপদে,উদ্বেগ-উৎকন্ঠায়,অসুখে-বিসুখে, সুস্থ ও সবল হতে কিংবা জীবনে সফলতা অর্জনের জন্য প্রয়োজন হলো ধৈর্য।তাই বিপদে ধৈর্য ধারণ করাই হলো বীরত্বপূর্ন কাজ।সাহসী মানুষেরই থাকে এই গুন।হাদিসে এসেছে,”যে ব্যক্তি বিপদে ধৈর্যধারণের চেষ্টা  করবে আল্লাহ তায়া’লা তাকে ধৈর্য এর শক্তি দান করবেন।ধৈর্য থেকে উত্তম ও কল্যানকর বস্তু আর কি আছে।

তিনটি স্তর রয়েছে ধৈর্য ধারণের।মুমিন বান্দাদের রয়েছে এই তিনটি গুন আয়ত্ত করার গুন তা হলো,নিজের নফসকে ইবাদত ও আনুগত্য এ বাধ্য করা।যে কোন বিপদে আপদে নির্বিঘ্ন ধৈর্যধারণ করা।নিজের নফসকে হারাম ও অবৈধ কাজ থেকে বিরত রাখা।যখন কোন মহা’মারি রোগ ব্যধির প্রকোপ দেখা দেয় তখন মুমিন বান্দাদের ধৈর্যের পরিক্ষা দিতে হয়। মুমিন বান্দাদের ধৈর্যহারা হলে চলবে না।বিনা হিসাবে জান্নাতে যেতে হলে মহা’মারি, প্রাকৃতিক দূর্যোগসহ বিপদে আপদে মুমিন বান্দাকে গুরুত্বপূর্ণ ধৈর্য এর গুন অর্জন করতে হবে।সমাজের প্রতিটি ক্ষেত্রে ধৈর্যের সাথে সাহসিকতা অর্জন করতে হবে।আল্লাহ সবাইকে ধৈর্য ধারণ কারী হিসেবে কবুল করুক।

সোশ্যাল মিডিয়া পোষ্টটি শেয়ার করুন।

এই ক্যাটাগরির আরও পোষ্ট
© All rights reserved © 2020 bdnews99.com