1. asmaakter99987@gmail.com : Asma Akter : Asma Akter
  2. jannatulsifa9486@gmail.com : BD NEWS 99 :
  3. ohanafariah8@gmail.com : Fariah Jalal Ohana : Fariah Jalal Ohana
  4. help.geniusplug@gmail.com : Geniusplug Technology : Geniusplug Technology
  5. jannatulparash123@yahoo.com : Jannat Parash : Jannat Parash
  6. jannatulsifa236@gmail.com : jannatul sifa : jannatul sifa
  7. kabirtanzim2@gmail.com : Kabir Mahmud : Kabir Mahmud
  8. jakia0702@gmail.com : Kuashabrita Usha :
  9. nilmubdiol@gmail.com : Md Mubdiul Islam : Md Mubdiul Islam
  10. mituakter54402@gmail.com : Mehreen Mitu :
  11. engr.romansarkar@gmail.com : romanbd :
  12. afrinsabrin2019@gmail.com : SABRIN AFRIN :
  13. jannatul.sifa@yahoo.com : Shahjadi Mukti :
  14. soyboliny@gmail.com : Shifat Afrin Semu : Shifat Afrin Semu
  15. suchonaislam23@gmail.com : Shuchona Islam :
  16. ummayjahan3@gmail.com : Tanzina Mim : Tazina MIm
বুধবার, ২৮ অক্টোবর ২০২০, ০৭:৩২ অপরাহ্ন

বিশ্বের রহস্যময় পাঁচটি দরজা যা আজও খোলা হয়নি

  • প্রকাশিতঃ রবিবার, ১৪ জুন, ২০২০
  • ৫ বার দেখা হয়েছে

বিশ্বের রহস্যময় পাঁচটি দরজা যা আজও খোলা হয়নি।পৃথিবী একটি আজব জায়গা,এর চারদিক রহস্যেঘেরা।কিছু কিছু জায়গা এতোটাই রহস্যময় যে সেগুলোর রহস্যভেদ এই বিশ শতাব্দীতে এসেও করা সম্ভব হয়নি।বর্তমান সময়তে তথ্য প্রযুক্তিগত দিক থেকে আমরা অনেক এগিয়ে।কি দারুণ দারুণ সব আবিষ্কার,কত জটিল সমস্যা কত সহজে দূর করা সম্ভব।কিন্তু তথ্যপ্রযুক্তি বা বিজ্ঞান এতো এগিয়ে যাওয়া সত্যেও পৃথিবীতে থাকা পাঁচটি দরজা আজও পর্যন্ত খোলা যায়নি এবং তার পেছনের রহস্য উদঘাটন করা যায়নি।এই পাঁচটি দরজা ঘিরে অনেক কথাই প্রচলিত আছে,অনেক বিশ্বাস বা আত’ঙ্কও আছে।বিশ্বের রহস্যময় কিছু জায়গা আছে যেখানে মানুষের প্রবেশাধিকার নিষেধ।এমনই এই পাঁচটি দরজা।কেউ বলে দরজাগুলো অভিশপ্ত আবার কেউ বলে দরজাগুলো খুললে এলিয়েন হানা দিবে এমন নানা কথা।কিন্তু সত্যি এটাই যাই থাকুক এর পেছনের কারণ দরজাগুলো খোলা সম্ভব হয়নি।কিছুতো ব্যাপার আছেই।চলুন তাহলে আজকে অদ্ভুত এবং বিশ্বের রহস্যময় সেই পাঁচটি দরজার কথা জেনেই নেই।

ভারতের কেরালা রাজ্যে অবস্থিত পদ্মনাভস্বামী মন্দির।বলা হয় এটি পৃথিবীর সবচেয়ে ধনী এবং সবচেয়ে রহস্যময় মন্দির।ধনী এই কারণে কারণ ২০১১ সালে এই মন্দিরের সিল করা ৫ টি দরজা খুলে বিপুল পরিমাণ অর্থসম্পদ পাওয়া গিয়েছিলো।আর রহস্যময় এই কারণে ১৯০৮ সালে যখন একবার ওই দরজাগুলো থেকে প্রথম দরজাটি খোলার চেষ্টা করা হয়েছিলো তখন তাদের সামনে প্রচুর পরিমাণে সাপ বেরিয়ে এসেছিলো। কিন্তু ১৯৩১ সালে যখন একটি দরজা খোলা হয় হয় তখন আর কোন সাপ বেরিয়ে আসেনি বেরিয়েছিলো প্রচুর পরিমাণ সোনা।১৯৩১ সালে শুধু একটি দরজাই খোলা সম্ভব হয়েছিলো।পরবর্তীতে ২০১১ সালে সরকারি নির্দেশ মোতাবেক ৫ টি দরজা খোলা হয় আর সেখান থেকে ২২ বিলিয়ন মূল্যের সোনা পাওয়া গিয়েছিলো।কিন্তু ছয় নাম্বার দরজাটি আজও খোলা যায়নি।

আশ্চর্যের বিষয় হচ্ছে সেই দরজায় চাবি ঢোকানোর কোন গর্ত নেই দরজায় শুধু বেশ কয়েকটি সাপ খোদাই করা।মন্দিরের পুরোহিতরা বলেন সেই দরজাটি ক্ষীরসমুদ্রের সঙ্গে যুক্ত যেখানে পদ্মনাভস্বামী বিশ্রাম করেন।এই দরজা যদি খোলা হয় তাহলে প্রলয় শুরু হবে পৃথিবী জলে ভেসে যাবে।তাই ২০১১ সালে দরজাটি খোলার জন্য সরকার নির্দেশ দিলে সেখানকার জনগণ তাতে বাধা দেয় এবং সেই দরজা যেনো না খোলা হয় তার ব্যাপারে রিট করে আপিল করা হয়।টেরাকোটা সেনা চীনের জিংওয়ারের এক বিস্ময় যা পুরো পৃথিবীকে হতবাক করে দিয়েছিলো।৪৫ বছর বা তারও বেশি সময় আগে মাটির নীচে ২০ হাজার বর্গকিলোমিটার এলাকাজুড়ে জীবন্ত সৈন্য দুর্গদ্বার আগলে যেনো দাড়িয়ে আছে ৮ হাজার সেনা,১৩০ টি রথ,৫২০ টি ঘোড়া এবং ১৫০টি ঘোড়সওয়ার সেনা নিয়ে দাড়িয়ে আছে।আর এগুলো সবই ছিলো মাটির বা ব্রোঞ্জের তৈরি মূর্তি।কিভাবে এতো বছর এই মূর্তিগুলো অক্ষত ছিলো সেটা একটা প্রশ্ন পক্ষান্তরে টেরাকোটা সেনাদের মাঝে একটি দরজা পাওয়া যায় সেই দরজার পেছনে কি রহস্য লুকিয়ে আছে তা উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

১৪ তম সন্তান জন্ম দিতে গিয়ে মমতাজ মারা গেলে পত্নী প্রেমে শাহজাহান ২২ বছর সময় নিয়ে তাজমহল তৈরি করেন।তাজমহল পৃথিবীর জনপ্রিয় স্থান গুলোর একটি।এই তাজমহলও রহস্যেঘেরা।তাজমহলে বেশ কিছু গোপন দরজা আছে যা কেউ খুলতে পারেনি।আর সেই বন্ধ দরজাগুলোর পেছনে কি রহস্য লুকিয়ে আছে তা আজও জানা যায়নি।বলা হয় স্ফিংস অব গিজার আগাগোড়া পুরোটাই নাকি রহস্য।মিশরের পিরামিড বা স্ফিংস গুলো কিভাবে তৈরি করা হয়েছে তা অজানা।অনেকেই মনে করেন বাইরের জগতের এলিয়েনের তৈরি এই পিরামিড আবার অনেকে মনে করেন মিশরের বালির নীচে লাইব্রেরি আছে সেখানেই পিরামিড বানানোর খুঁটিনাটি উল্লেখ আছে।স্পিংস অব গিজায় এমন একটি দরজা আছে যা খোলা যায়নি।দরজা খোলার কাজ শুরু হলেও প্রশাসন তা বন্ধ করে দেয়।

অস্ট্রেলিয়ার সিডনিতে অবস্থিত রাসেল হোটেলের ৮ নম্বর রুমের দরজা কেউ খোলার চেষ্টা করেনা।এই রুমটির দরজা সবসময় বন্ধ থাকলেও গভির রাতে হোটেল কর্মচারীরা সেই রুম থেকে জোড়ে জোরে পা ফেলার আওয়াজ পান।বলা হয় সেই রুমে একটি নাবিকের আত্মা আটকা পরে আছে।পৃথিবীতে অনেক প্যারানরমাল বিষয় আছে যেগুলো আসলে যুক্তিতর্ক বা বিজ্ঞান দিয়ে সমাধান করা যায়না।কিছু রহস্য উদঘাটন না করাই উত্তম এতে বিপদ হতে পারে।

সোশ্যাল মিডিয়া পোষ্টটি শেয়ার করুন।

এই ক্যাটাগরির আরও পোষ্ট
© All rights reserved © 2020 bdnews99.com